Skip to content

চিন্তা বিষয়ক চিন্তা

ডিসেম্বর 9, 2012

চিন্তা অনেক কিছু দিয়ে ব্যাখ্যা করা যেতে পারে। সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য হল দৃষ্টবাদ তথা বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা। গ্রহণযোগ্যতা কালসাপেক্ষ। যেমন এককালের দর্শন আজ অস্তিত্ব বিলুপ্ত কিন্তু সেসময়ের শুদ্ধ হাতিয়ার। পরীক্ষণ ও পর্যবেক্ষনের বাইরে সকল প্রস্তাবনা আমি অস্বীকার করব। পর্যবেক্ষন সাপেক্ষে চিন্তার ফলাফলে ধ্রুবতা রয়েছে। যেমন মানুষ একটি ক্রিয়ার যে তথ্যটি উদঘাটন করবে অন্য প্রাণীও অনুসন্ধানে একইরকম তথ্য পাবে।

জীবন ও চিন্তা পরস্পর সমন্বয় করে চলে। এখানে জীবন চিন্তা থেকে অনেক মুখ্যতা পেয়ে আসছে। এটা একদিকে উন্নয়নের গতি ধীর করে দিয়েছে। চিন্তার কিছু সঙ্গী আছে যেমন অনুভূতি,ইচ্ছা। এগুলো ছাড়া জীবন অসহায়।

একক চিন্তা খুবই দুর্বল। সম্মিলিত চিন্তাগুলো মানবজাতিকে হাজার বছর এগিয়ে দিয়েছে। বেলুন একটা পর্যায়ে ফুলতে ফুলতে পুনরায় সঙ্কোচিত হয়। এখনো চিন্তার পরিধি বাড়ছে। একটা পর্যায়ে চিন্তার ফলাফলগুলো দিয়ে পরমসত্ত্বার ক্ষমতা অর্জন করবে মানবজাতি।

গভীরে প্রবেশের ক্ষমতা হল চিন্তার বৃহত্তর প্রদর্শন। এটা চিন্তার বাজেয়াপ্ত সম্পত্তি। মহাপুরুষগণ এক্ষেত্রে নিজেদের প্রদর্শনী দেখিয়ে গেছেন। তাদেরকে গভীরে প্রবেশের ক্ষমতা হয়ত অর্জন করতে হয়েছে নয়ত তারা জন্মগতভাবে প্রতিভা প্রাপ্ত। চিন্তার অক্ষমতা প্রকাশ পেলে অনুভূতি ও ইচ্ছা সজাগ ভুমিকা পালন করবে। চিন্তা,অনুভূতি,ইচ্ছা হল অবজেক্ট। জীবন সাবজেক্ট।

Advertisements
মন্তব্য করুন

কিছু বলেন...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: